শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

ওমিক্রন’ কতটা ভয়ঙ্কর, জানালেন শনাক্তকারী সেই চিকিৎসক

জহির উদ্দিন মাহমুদ / ১০০ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১

ওমিক্রন’ কতটা ভয়ঙ্কর, জানালেন শনাক্তকারী সেই চিকিৎসক

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ আবিষ্কার করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার মেডিকেল এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ডক্টর অ্যাঞ্জেলিক কোয়েৎজি। ভাইরাসটির এই ধরনের আক্রান্ত হওয়ার পর উপসর্গ কেমন তা জানিয়েছেন তিনি।

নিউ ইয়র্ক পোস্ট জানায়, গত ১০ দিনে তিনি অন্তত ৩০ জন রোগীকে চিকিৎসা দিয়েছেন। যারা করোনা পজিটিভ ছিলেন। তবে তাদের শরীরে তিনি কিছু ‘অপরিচিত উপসর্গ’ দেখতে পেয়েছেন তিনি।

অ্যাঞ্জেলিক কোয়েৎজি জানান, তার কাছে চিকিৎসা নেওয়া সন্দেহভাজন কয়েক ডজন ওমিক্রন আক্রান্ত রোগীর শরীরে কেবলমাত্র মৃদু উপসর্গ দেখা গেছে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ছাড়াই তারা পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

তিনি বলেন, আক্রান্তদের দেহে চরম ক্লান্তি দেখা গেছে। তরুণ রোগীদের ক্ষেত্রে এই উপসর্গ ছিল একেবারেই ‘অস্বাভাবিক।’ রোগীদের বেশিরভাগই পুরুষ। যাদের বয়স ৪০ বছরের নিচে। মজার বিষয় হচ্ছে, আক্রান্ত এসব পুরুষের মধ্যে অর্ধেকই করোনা টিকার পূর্ণ ডোজ নেওয়া ছিলেন। তাদের পেশীতে মৃদু ব্যথা, গলায় খুসখুস ভাব এবং শুকনো কাশি ছিল। মাত্র অল্প কয়েকজনের শরীরের তাপমাত্রা সামান্য বেশি ছিল।

গত ১৮ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের করানার নতুন ধরনের ব্যাপারে প্রথম সতর্ক করে দেন অ্যাঞ্জেলিক কোয়েৎজি। ওই সময় তিনি ৩০ জন করোনা রোগীর মধ্যে ৭ জনের শরীরে অস্বাভাবিক উপসর্গ দেখতে পান তিনি। যা করোনার অন্যান্য ধরনগুলোর উপসর্গের চেয়ে ভিন্ন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় আবিষ্কৃত হওয়ার পর থেকে খুব দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। এই ভ্যারিয়েন্টটি এখন পর্যন্ত ব্রিটেন, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক, বেলজিয়াম, বতসোয়ানা, ইসরায়েল, অস্ট্রেলিয়া এবং হংকং এ শনাক্ত করা হয়েছে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার এই নতুন প্রজাতিকে ‘উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট’ হিসেবে ঘোষণা দেয়। সংস্থাটি বলেছে, করোনার নতুন ধরনটির স্পাইক প্রোটিনে ৩২ বার রূপ বদল ঘটেছে। সাধারণত ভাইরাসের এ ধরনের বারবার রূপ বদল সেটিকে আরো বেশি সংক্রামক এবং বিপজ্জনক করে তোলে।


এই বিভাগের আরো খবর