শিরোনাম:
স্বামী যদি সহবাসে অক্ষম হয়, তাহলে স্ত্রীর কী করা উচিৎ? বি’ব্র’তক’র সা’দাস্রা’ব প্র’তিরো’ধে ক’রণী’য়। প্র’ত্যে’ক মে’য়ে’র জেনে রা’খা প্র’য়োজ’ন লক্ষ্মীপুরে আ. লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদ নিয়ে টানাটানি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে বিয়ে, যা বললেন পরীমনি ভায়াগ্রা নয়, পেঁয়াজ দিয়েই বাড়ান ৩গুণ সেক্স! এবং সহবাসে সঙ্গীকে দিন পরিপূর্ণ তৃপ্তি! শা’রী’রিক মি’ল’নে চ’র’ম আন’ন্দ পে’তে ট্রা’ই ক’রু’ন এই ভ’ঙ্গি’মা সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা ও’ষুধ-ক’নডম ছাড়াই কিভাবে জ’ন্ম নি’য়ন্ত্রণ করা সম্ভব ! বিবা’হিত দম্পতিরা জেনে রাখু’ন গাছের পাতা বিক্রি করে বছরে আয় ১২ লাখ টাকা জেগে উঠেছে সমুদ্রগর্ভের ‘ঘুমন্ত দানব’
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১২:০০ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

আল জাজিরা বিতর্ক: প্রতিবেদন নিয়ে চার জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

চলমান বাংলা ডেক্স / ১৯১ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

আল জাজিরা বিতর্ক: প্রতিবেদন নিয়ে চার জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরায় প্রচারিত ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ শিরোনামে প্রতিবেদনের সাথে সংশ্লিষ্ট চার জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মামলার আবেদন করা হয়েছে ঢাকার একটি আদালতে।
মামলার আবেদনে অভিযুক্তরা হলেন, ব্রিটিশ সাংবাদিক ডেভিড বার্গম্যান, সুইডেন প্রবাসী সাংবাদিক তাসনিম খলিল, হাঙ্গেরি প্রবাসী বাংলাদেশি জুলকারনাইন সামি এবং আল জাজিরার ডিরেক্টর জেনারেল ও প্রধান সম্পাদক মোস্তেফা স্যোয়াগ।
ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে বুধবার মামলার আবেদনটি করেছেন বঙ্গবন্ধু ফাউণ্ডেশন নামের একটি সংগঠনের নির্বাহী সভাপতি আব্দুল মালেক ওরফে মশিউর মালেক।
তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশের সেনা বাহিনীর প্রধান এবং তার ভাইদের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রতিবেদন আল জাজিরায় প্রচার করে রাষ্ট্র এবং সরকার বিরোধী ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। আবেদনে তিনি এই অভিযোগ এনেছেন।
তিনি বলেছেন, তার মামলা গ্রহণ করা না করা বা তদন্তের প্রশ্নে তারা এখন আদালতের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন। বৃহস্পতিবার আদালত কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারে, এমনটা তিনি আশা করছেন।
তবে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মামলা করার ক্ষেত্রে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন বা অনুমতির প্রয়োজন হয়।
আইনজীবীরা জানিয়েছেন, মামলা গ্রহণ করা না করার প্রশ্নে সিদ্ধান্ত দেয়ার আগে আদালত যদি আবেদনটি তদন্তের জন্য পাঠায়, তখন তদন্তে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগের প্রমাণ মিললে সরকারের অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন হয়।
সেই পর্যায়ে তদন্তকারি কর্মকর্তা অনুমতির জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করতে পারেন।
তবে অনুমতি দেয়ার এখতিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বলে তারা উল্লেখ করেছেন।


এই বিভাগের আরো খবর