শিরোনাম:
স্বামী যদি সহবাসে অক্ষম হয়, তাহলে স্ত্রীর কী করা উচিৎ? বি’ব্র’তক’র সা’দাস্রা’ব প্র’তিরো’ধে ক’রণী’য়। প্র’ত্যে’ক মে’য়ে’র জেনে রা’খা প্র’য়োজ’ন লক্ষ্মীপুরে আ. লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদ নিয়ে টানাটানি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে বিয়ে, যা বললেন পরীমনি ভায়াগ্রা নয়, পেঁয়াজ দিয়েই বাড়ান ৩গুণ সেক্স! এবং সহবাসে সঙ্গীকে দিন পরিপূর্ণ তৃপ্তি! শা’রী’রিক মি’ল’নে চ’র’ম আন’ন্দ পে’তে ট্রা’ই ক’রু’ন এই ভ’ঙ্গি’মা সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা ও’ষুধ-ক’নডম ছাড়াই কিভাবে জ’ন্ম নি’য়ন্ত্রণ করা সম্ভব ! বিবা’হিত দম্পতিরা জেনে রাখু’ন গাছের পাতা বিক্রি করে বছরে আয় ১২ লাখ টাকা জেগে উঠেছে সমুদ্রগর্ভের ‘ঘুমন্ত দানব’
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৩৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

দুদকের মামলায় লক্ষ্মীপুর আদালতের গাড়িচালক কারাগারে

বিশেষ প্রতিনিধি / ৪০৬ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০

দুদকের মামলায় লক্ষ্মীপুর আদালতের গাড়িচালক কারাগারে

আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের মামলায় লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের গাড়িচালক নুর হোসেন পাটওয়ারী ও তার ভাই আমির হোসেন পাটওয়ারীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রহিবুল ইসলাম তাদেরকে আদালতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

লক্ষ্মীপুর আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) জসিম উদ্দিন বলেন, দুদকের মামলায় নুর হোসেন ও আমির হোসেন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চেয়েছে। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো নির্দেশ দিয়েছেন।

আসামিদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির জানিয়েছেন, নুর হোসেন ও আমির হোসেন দুদককে সম্পদের হিসাব দেয়নি। জামিন অযোগ্য ধারা হওয়ায় তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

জানা গেছে, নুর হোসেন ও আমির হোসেন সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের যাদৈয়া গ্রামের মৃত মোহাম্মদ উল্যা পাটওয়ারীর ছেলে। নুর হোসেন লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের গাড়ি চালক ও আমির হোসেন একজন ব্যবসায়ী।

এজাহার সূত্র জানায়, আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও ভোগ দখলে থাকার অভিযোগে দুদকের নোয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয় ২০১৯ সালের ৮ জুলাই নুর হোসেন ও আমির হোসেনকে সম্পদ বিবরণী দাখিলের নোটিশ জারি করে। এর আগে ওই কার্যালয় তাদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করে।

২০১৯ সালের ১৯ নভেম্বর দুদকের প্রধান কার্যালয় নোয়াখালী কার্যালয়কে ওই দুই ভাইয়ের সম্পদ বিবরণীর আদেশ জারির নির্দেশ দেয়। এ প্রেক্ষিতে একই বছর ২৯ ডিসেম্বর নোয়াখালী কার্যালয় বিবরণীর আদেশ জারি করেন। এরমধ্যে নুর হোসেনকে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি ও আমির হোসেনকে ১৬ ফেব্রুয়ারি সম্পদ বিবরণীর ফরম বুঝিয়ে দেয়া হয়।

একই সঙ্গে দুদকের নোয়াখালী কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ তাদেরকে ফরম বুঝিয়ে দিয়ে অফিস কপিতে স্বাক্ষর নেন। কিন্তু ফরম বুঝে পাওয়ার দিন থেকে ২১ কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদ বিবরণী দাখিল করার কথা থাকলেও তারা তা করেনি। এমনকি তারা সময় বৃদ্ধির আবেদনও করেননি।

এজন্য দুদক আইন ২০০৪ এর ২৬(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করায় তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। এরপরও তারা সম্পদের হিসেব দুদকের কাছে জমা না দেয়ায় আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।


এই বিভাগের আরো খবর