শিরোনাম:
স্বামী যদি সহবাসে অক্ষম হয়, তাহলে স্ত্রীর কী করা উচিৎ? বি’ব্র’তক’র সা’দাস্রা’ব প্র’তিরো’ধে ক’রণী’য়। প্র’ত্যে’ক মে’য়ে’র জেনে রা’খা প্র’য়োজ’ন লক্ষ্মীপুরে আ. লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদ নিয়ে টানাটানি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে বিয়ে, যা বললেন পরীমনি ভায়াগ্রা নয়, পেঁয়াজ দিয়েই বাড়ান ৩গুণ সেক্স! এবং সহবাসে সঙ্গীকে দিন পরিপূর্ণ তৃপ্তি! শা’রী’রিক মি’ল’নে চ’র’ম আন’ন্দ পে’তে ট্রা’ই ক’রু’ন এই ভ’ঙ্গি’মা সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা ও’ষুধ-ক’নডম ছাড়াই কিভাবে জ’ন্ম নি’য়ন্ত্রণ করা সম্ভব ! বিবা’হিত দম্পতিরা জেনে রাখু’ন গাছের পাতা বিক্রি করে বছরে আয় ১২ লাখ টাকা জেগে উঠেছে সমুদ্রগর্ভের ‘ঘুমন্ত দানব’
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১২:২০ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

দক্ষিণ কোরিয়ার কূটনীতিকের দাবি কোমায় কিম জং উন, ক্ষমতা নিচ্ছেন ছোট বোন!

চলমান বাংলা ডেক্স / ৪৪৮ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট, ২০২০

 

মাত্র কয়েকদিন আগেই বোনের ক্ষমতা বাড়িয়ে দেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। এর মধ্যেই প্রকাশ্যে এল এক বিস্ফোরক তথ্য।

দক্ষিণ কোরিয়ার এক কূটনীতিক দাবি করেছেন, কিম জং উনের শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন। বর্তমানে তিনি কোমায় রয়েছেন।

এই পরিস্থিতিতে দেশের ক্ষমতা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন তার ছোট বোন কিম ইয়ো জং। খবর ডেইলি মেইল, ফক্স নিউজ ও ওয়াশিংটন পোস্টের।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট কিম দায়ে জুং-এর সাবেক সহযোগী চ্যাং সং মিন দাবি করেছেন, উত্তর কোরিয়া তাদের সর্বোচ্চ নেতার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটার বিষয়টি লুকাচ্ছে।

কিমের সুস্থতার বিষয়টি নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে নানা গুঞ্জন তৈরি হয়েছে।

বিশেষ করে চলতি বছর কিমকে জনসম্মুখে খুব একটা দেখা না যাওয়ায় তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে পড়ছে। কিছুদিন আগেই গুজব ছড়িয়েছিল যে কিম মারা গেছে। যদিও উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এসব গুঞ্জন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

স্থানীয় একটি গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে চ্যাং সং মিন নামের দক্ষিণ কোরিয়ার ওই কূটনীতিক বলেন, আমার ধারণা তিনি কোমায় আছেন। তবে তিনি মারা যাননি।

তিনি আরও বলেন, কিম জং উনের ছোট বোন কিম ইয়ো জং (৩৩) ভাইয়ের কিছু ক্ষমতা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন। কিমের উত্তরাধিকারী কে হবে তা হয়তো এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আবার দীর্ঘকাল ধরে তার জায়গা শূন্য অবস্থায়ও দেখানো যাচ্ছে না। সে কারণেই হয়তো সাম্প্রতিক সময়ে বার বার কিম ইয়ো জংকে সামনে আনা হচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়ার গণমাধ্যমে কিমের কিছু ছবি প্রকাশের পরও চ্যাং সং মিন এমন দাবি করছেন। এসব ছবিতে কিমকে সরকারি বৈঠকে অংশ নিতে দেখা গেছে। যদিও রয়টার্স বলছে, এসব ছবি যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

চলতি সপ্তাহের শুরুতেই উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, কিম জং উন তার বোনকে দেশটির সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছেন। ফলে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার প্রধান নীতি নির্ধারক হিসেবে কাজ করবেন তিনি।


এই বিভাগের আরো খবর