সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৬ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

বুধবার বাংলাদেশের হাইকোর্টে পরীমনি, হাতে অশ্লীল বার্তা ‘

বিশেষ প্রতিনিধি / ৬৭ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বুধবার বাংলাদেশের হাইকোর্টে পরীমনি, হাতে অশ্লীল বার্তা ‘

এইদিন কোর্ট চত্বরে পরীমনিকে দেখতে ভিড় করেছিল জনতা।
১৫ সেপ্টেম্বর আদালতে হাজিরা দিতে আসেন বাংলাদেশের বিখ্যাত নায়িকা পরীমনি। বিগত কয়েক মাস ধরে তাঁকে নিয়ে যে সব বিতর্ক চলছে, তাতে তিনি একাটানা রয়েছেন খবরে। এদিন সকাল সকাল হাইকোর্টে পৌঁছেন পরীমনি। তবে বেলা ১২টা অবধি তিনি গাড়ির মধ্যে বসেই অপেক্ষা করেন। তাঁকে দেখতে উৎসাহী জনতার ভিড়ে ভরে যায় আদালত চত্বর। পরে পুলিশি নিরাপত্তার সঙ্গে পরীমনিকে নিয়ে যাওয়া হয় আদালতের ভিতরে। তবে, বিস্ফোরিত বার্তা ছিল পরীর হাতে।

৪ আগস্ট পরীমনির বনানীর বাড়িতে অভিযান চালায় র‍্যাব। তারপর তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়। এ মামলায় পরীমনিকে প্রথমে চার দিন, দ্বিতীয় দফায় দু’দিন এবং তৃতীয় দফায় একদিন-সহ মোট সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রিমান্ড বাড়ানো হতে থাকলে জজ আদালতে জামিনের আবেদন করেন পরীমনি। সেখানেও শুনানির তারিখ দেরিতে নির্ধারণ করায় হাইকোর্টে আবেদন করেন তিনি। যদিও পরে জজ আদালত থেকে মামলার তারিখ এগিয়ে নিয়ে আসা হয়। ৩১ আগস্ট জামিন দেওয়া হয়। পরদিনই পরীমনি কারামুক্ত হন।

তবে হাইকোর্ট কেন শেষ দফা রিমান্ডে নেওয়া হল পরীমনিকে সে ব্যাপারে জানতে চেয়েছে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের দুই বিচারক দেবব্রত বিশ্বাস ও আতিকুল ইসলামের কাছে। তবে তাতে সন্তুষ্ট নয় হাইকোর্ট। ২৯ সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে। প্রসঙ্গত, এই মামলার তদন্তের দায়িত্বে থাকা অফিসার গোলাম মোস্তাফাকে নিজের অবস্থান ও কারণ ব্যাখ্যা করতে বুধবার আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এবং তিনি হাজিরও ছিলেন।

অন্য দিকে, পরীমনির তরফে আবেদন করা হয় তাঁর বাড়ি থেকে আটক করা কাগজ, ফোন, আইপ্যাড ও গাড়ি যেন ফেরত দেওয়া হয়। নায়িকার দাবি, গাড়ি না থাকায় তিনি সমস্যায় পড়েছেন। সঙ্গে জানান, গাড়ির সব কাগজ তাঁর গাড়ির মধ্যেই রাখা ছিল। তাই আদালতকে দেওয়ার মতো প্রমাণও তাঁর কাছে নেই। প্রসঙ্গত, এত দামি গাড়ি কোথা থেকে পরীমনির কাছে এল তা নিয়েও তদন্ত চলছে। তদন্তকারী অফিসারদের পক্ষ থেকে আদালতকে অনরোদ করা হয়েছে গাড়ি ফেরত না দেওয়ার। যা মেনে নিয়ে পরবর্তী শুনানির মধ্যে গাড়ির মানিকানা জমা দেওয়ার কথা বলেছে আদালত।

 


এই বিভাগের আরো খবর