বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩০ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে শিশু শাহাদাত : বাঁচতে প্রয়োজন সহযোগিতা

জহির উদ্দিন মাহমুদ / ৬৯ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে শিশু শাহাদাত : বাঁচতে প্রয়োজন সহযোগিতা

লক্ষ্মীপুর থেকে এম জেড মাহমুদঃ

খেলাধুলা, ছোটাছুটি আর হইহুল্লোড়ে চারদিক মাতিয়ে রাখতো যে শিশুটি, সেই শিশুটি জীবন- মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। মা-বাবা, ভাইসহ প্রতিবেশীদের সঙ্গে তার সখ্যতা একটু বেশিইছিল। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে শাহাদাত হোসেন (৯) নামের এই শিশুটি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে আক্রান্ত চর বামনী গ্রামের শিশুটির চোখে-মুখে বাঁচার আকুতি। শিশুটি বর্তমানে গত চারদিন ধরে শিশু হাসপাতালের এক নাম্বার ওয়ার্ডের ৩৯ নাম্বার সিটে চিকিৎসারত।
পরিবার জানায়, শাহাদাতের বাবা মাসুদ আলম দরিদ্র দিনমজুর। স্ত্রী ও দুই ছেলে নিয়ে কোনও রকম সংসার চালান। দুই ছেলে বড় হবে, এক সময় সংসারের হাল ধরব এমন স্বপ্ন নিয়ে তিনি তাদের লেখাপড়া শেখাচ্ছিলেন। কিন্তু শাহাদাতের বয়স যখন ২ বছর, তখন তার জ্বর হয়ে ফুলে যায়। অনেক চিকিৎসা দেওয়া হলেও জ্বর ভালো হয় না।
পরে তাকে লক্ষ্মীপুরের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে দুই কিডনি অকেজো ধরা পড়ে। চিকিৎসকরা তাকে দ্রুত ঢাকা শিশু হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে কিছুটা ভালো হলে তাকে গ্রামের বাড়ি আনা হয়। করোনার কারনে তার চিকিৎসা কোনরকম চলছিলো। গত চারদিন আগে তার সমস্যা বেশি দেখা দিলে তাকে শ্যামলী শিশু হাসপাতালের চিকিৎসক ডাক্তার মোঃ হানিফ ও শিরিনা আফরোজার তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। দুই চিকিৎসকই পুনরায় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানান, দেশে তার চিকিৎসা নেই।
শিশু শাহাদাত বলে, ‘আমি বাঁচতে চাই। বন্ধুদের সাথে খেলতে চাই।’ শিশুটি যখন কথা বলছিল, তখন বাবা-মাসহ স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।
শিশুটির বাবা মোঃ মাসুদ বলেন, ‘আমরা ভাবছি, শাহাদাতকে ভারতে নিয়ে চিকিৎসা করাবো, কিন্তু এতদিন দেশের মধ্যে চিকিৎসা করাতে গিয়েই ধার-দেনাসহ ভিটে-মাটি সম্ভাব্য সব টাকার উৎস শেষ হয়ে গেছে। বাইরে চিকিৎসা করাতে গেলে প্রায় ২০ লাখ টাকা প্রয়োজন। এখন কীভাবে কী করবো! কিন্তু আমার ছেলেটা বাঁচতে চায়। পুনরায় স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চায়। ছেলেকে বাঁচাতে সরকারসহ বিত্তবানদের এগিয়ে আসার অনুরোধ করছি।’
শাহাদাতের বাবার বিকাশ পারসনাল নাম্বার: ০১৮৫১৮৫৫৮১। এই নম্বরে শিশুটির জন্য মানবিক সাহায্য পাঠানো যাবে। অথবা সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর ১০০১০৪৬৪৯, রাখালিয়া শাখা, সোনালি ব্যাংক এবং ৩৩০১৬৯, রায়পুর শাখা, ইসলামি ব্যাংক, বাংলাদেশ। এই নম্বরেও টাকা পাঠানো যাবে।


এই বিভাগের আরো খবর