বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

আমন মৌসুমেও খাদ্যগুদামে ধান দিতে অনীহা কৃষকের

সৈয়দপুর প্রতিনিধি / ২১৪ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১

আমন মৌসুমেও খাদ্যগুদামে ধান দিতে অনীহা কৃষকের

সৈয়দপুর প্রতিনিধি

সৈয়দপুরে বোরোর মতো আমন মৌসুমেও ধান-চাল সংগ্রহ অভিযান সফল হয়নি। কৃষকদের কাছ থেকে সরকারি খাদ্যগুদামে যায়নি এক মুঠো ধানও। বাজারে বেশি দাম পাওয়ায় গুদামে ধান বিক্রি করতে কৃষকদের মধ্যে অনীহা রয়েছে। এদিকে সংগ্রহ ব্যর্থ হওয়ার কারণ হিসেবে সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে স্থানীয় বাজারে ধানের দাম বেশি ও মিলারদের অসহযোগিতাকে দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৮ জানুয়ারি খাদ্যগুদামে আমন ধান-চাল সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়। সংগ্রহের শেষ সময় ছিল গত ১৫ মার্চ পর্যন্ত। উপজেলায় ১৯ টনের বিপরীতে মাত্র ৯ দশমিক ৬৯০ টন আতপ এবং ১ হাজার ৯৩৩ টনের বিপরীতে ২৪২ দশমিক ৩৭০ টন সিদ্ধ চাল সংগ্রহ করতে পেরেছে। এসব চাল সংগ্রহের জন্য মোট ১২টি রাইস মিলের সঙ্গে ধান ও চাল সংগ্রহের চুক্তি করা হয়। এছাড়া চলতি মৌসুমে প্রতি জনের কাছ থেকে ৩ টন করে ৩৫৮ টন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে ১১৯ জন কৃষকের তালিকা করা হয়। কিন্তু তাদের কাছ থেকে একমুঠো ধানও সংগ্রহ করতে পারেনি।

উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের নিজবাড়ি গ্রামের কৃষক জয়নাল আবেদীন বলেন, সরকার ১ হাজার ৪০ টাকা মণ দরে ধান কিনলেও স্থানীয় বাজারে প্রকারভেদে প্রতি মণ ধান ১ হাজার ২০০ থেকে ১ হাজার ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খাদ্যগুদামে ধান বিক্রি করতে শুকানো, ফ্যানিং করা, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, ময়েশ্চারসহ নানা রকম ঝামেলা পোহাতে হয়। ধান দেওয়ার পরও টাকা উঠাতে গিয়ে ধাপে ধাপে ঘুষ দিতে হয়।


এই বিভাগের আরো খবর