বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৩ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার...

চলনবিলে আমনে রঙিন কৃষকের মাঠ

চাটমোহর প্রতিনিধি / ২৬ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০

 

ওমা অঘ্রাণে তোর ভরা ক্ষেতে কি দেখেছি মধুর হাসি’-বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা আমাদের জাতীয় সঙ্গীতের এ অংশটুকুর বাস্তবতার পুরোপুরি দেখা মেলে,যদি কৃষকের পাশে ধান ক্ষেতের খুব কাছাকাছি যাওয়া যায়।

বিশেষ করে এই অগ্রহায়ন মাসের শুরুতে নবান্নের আমেজ চারিদিকের পরিবেশকে মনোরম কনে তোলে। পাবনার চাটমোহরসহ চলনবিল অঞ্চলের মাঠজুড়ে কৃষকের আবাদ করা আমন ধান ক্ষেতের এমন দৃশ্য সত্যিই মুখে হাসি ফোটাচ্ছে কৃষকের।

অগ্রহায়নের ঝলমলে আকাশ। মাঠে মাঠে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন দুলছে। বাতাসে হিমগন্ধে শীতের মাঠজুড়ে সোনারঙা ধানের ছড়াছড়ি। আমন ধানের চনমনে সুগন্ধে মাতোয়ারা চারিদিক। মাতোয়ারা কিষাণ-কিষাণী। চলনবিল অঞ্চলের কৃষক এখন ঘাম ঝরানো স্বপ্নের ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত। কোমর বেঁধে কৃষক ও কৃষি শ্রমিক ধান গাছের গোড়ায় চালাচ্ছে কাস্তে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় নির্বিঘ্নে ধান কাটা,মাড়াই ও শুকানোর কাজ করতে পারছেন কৃষক।

এবার ধানের দাম বেশী পাওয়ায় বেশ খুশি কৃষক। কৃষকের আঙিনায় গড়াগড়ি খাচ্ছে নতুন ধান। গ্রামের মাঠে মাঠে আমনের ম-ম গন্ধ। সবাই মেতে নব-অন্নের ঘ্রাণে। চাটমোহরসহ চলনবিল অঞ্চলে চলছে আমন ধান কাটার উৎসব। ফলনও ভালো। মৌসুমের শুরুতে হাটে আগাম ধানের দামও মিলছে ভালো। হিসাব করে এবার লাভের কথাই বলছেন চাষী।

এবার বছরজুড়ে আবহাওয়া ছিল বৈরী। বন্যা ও করোনার কারণে আমন রোপন অনেকটা পিছিয়ে যায়। নানা অযুহাতে চালের বাজার এখনো চড়া। তবে আমনের ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকের মনে আশা জাগছে। নবান্নে আনন্দে ধান কাটার ধূম পড়েছে।

চাটমোহর উপজেলার ছাইকোলার কৃষক আকতার হোসেন জানান,আগাম জাতের ধান কাটা শুরু হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে পুরাপুরি ধান কাটা শুরু হবে। কৃষক মতিউর রহমান জানান,এবার ধানের ফলন ভালো। পর্যাপ্ত বৃষ্টি হওয়ায় আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে।

চাটমোহর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এ এ মাসুমবিল্লাহ জানান,বন্যায় আমন ধানের কিছুটা ক্ষতি হরৌ ফলন ভালো হয়েছে। কৃষক দামও ভালো পাচ্ছেন।


এই বিভাগের আরো খবর